আনসারুল্লাহ বাংলা টিমফিলিস্তিন এক্সক্লুসিভবার্তা ও বিবৃতিমিডিয়া

আগ্রাসী ইহুদীদের গাজায় আক্রমণের বিষয়ে সিনাই এর আল-সালাফিয়াহ ওয়াল-জিহাদিয়া এর বিবৃতি

আনসারুল্লাহ বাংলা

পরিবেশিত

বাংলা অনুবাদ

 

সিনাই এর আল-সালাফিয়াহ ওয়াল-জিহাদিয়া এর বিবৃতি

আগ্রাসী ইহুদীদের গাজায় আক্রমণ বিষয়ে

প্রকাশনায়

সিনাই এর আল-সালাফিয়াহ ওয়াল-জিহাদিয়া

২ মুহাররম, ১৪৩৪ হিজরি; ১৬ নভেম্বর, ২০১২ ঈশায়ী

 

Word
https://www.mediafire.com/file/5mb8b21x5bw1jcn/A_S_J_S_Bn.doc/file
https://mega.nz/file/7IxUHa6Q#5dGZnCE-1x4bgG97chJQDhK5z5c2CX5Tsd6gFWYXW_I
https://archive.org/details/a-s-j-s-bn
https://top4top.io/downloadf-16630aqpj6-doc.html
https://files.fm/f/exmac3bx
https://www93.zippyshare.com/v/IQLiDoYt/file.html

PDF
https://www.mediafire.com/file/1mz8pm2jxajas67/A_S_J_S_Bn.pdf/file
https://mega.nz/file/7N5QwI7J#BaFM6Ce3gi0rvoB8SJxXSX-AQnASbrX6tTkIejz0f7k
https://archive.org/details/a-s-j-s-bn_202007
https://top4top.io/downloadf-1663aop1d5-pdf.html
https://files.fm/f/82udp3vj
https://www93.zippyshare.com/v/n8scw0Ax/file.html

পিডিএফ

https://archive.org/details/RegardingTheBrutalZionistAggressionAgainstGaza

 

———————  

পরম করুণাময় ও দয়ালু আল্লাহ তায়া’লার নামে শুরু করছি

সকল প্রশংসা আল্লাহর জন্য, যিনি বিশ্বজাহানের মালিক এবং দোয়া ও শান্তি বর্ষিত হোক সবচেয়ে সম্মানিত রাসূল, আমাদের শিক্ষক মুহাম্মাদ (সাঃ) ও তাঁর পরিবার, সাহাবী (রাঃ) ও আত্মীয়দের উপর … অতঃপর

আমরা শোকাহত এবং একই সাথে সমগ্র মুসলিম উম্মাহ শোকাহত কারন আগ্রাসী ইহুদীরা গাজায় আক্রমণ করেছে এবং তারা সেখানে ক্রমাগত তাদের অপরাধ বৃদ্ধি করার মাধ্যমে মুসলিমদের পবিত্র রক্ত সস্তা বস্তু বানিয়ে ফেলেছে, জিহাদের মনোবল ভেঙ্গে দেওয়ার জন্য যা ইহুদীদের পক্ষ থেকে নেয়া একটা পদক্ষেপ এবং প্যালেস্টাইনের (ফিলিস্তিন) পক্ষে পাশে যারা আছে তাদের জন্য বাঁধা এবং একটা বার্তা পাঠানো যে তাদের করা জিহাদের ফলাফল কেবল কবর ছাড়া আর কিছুই নয় এবং আত্মসমর্পণ করাই হল উত্তম সমাধান, যেহেতু ইহা ওবামা কর্তৃক ইহুদীদের সমর্থনের ফলে আমেরিকার নির্বাচনে সাফল্যের পর প্রদত্ত উপহার এবং এখানে সে আবারও তাদের দেয়া সে ঋণ পরিশোধ করছে আমাদের ভাইদের রক্ত থেকে।

কিন্তু কখনো গর্বিত গাজার বিদ্রোহী মুসলিম লোকেরা আত্মসমর্পণ করবে না এবং জিহাদের আগুন নেভানো অসম্ভব বরং এর ফলে তা উসকে দেয়া হবে ও বীরদের রক্তের মাধ্যমে তা আরো শক্তিশালী হবে।

এই করুন ঘটনার প্রেক্ষাপটে আমরা আমাদের বার্তা পাঠালাম নিন্মোক্তদের নিকটঃ

প্রথম বার্তা সমগ্র মুসলিম উম্মাহর প্রতিঃ

কেন দেড়শো কোটি মানুষের এই বিশাল উম্মাহ এই ধরনের আক্রমনের সামনে নিঃশব্দে অসহায়ভাবে দাঁড়িয়ে আছে, কেন এই লজ্জাজনক অবস্থান? মৃত্যুর পর আল্লাহর সামনে আমাদের অবস্থান কেমন হবে এবং যখন তিনি আমাদের ভাইদের সম্পর্কে জিজ্ঞেস করবেন কেন আমরা তাদের সমর্থন করিনি ও কেন তাদেরকে রক্ষা করিনি??? আমাদের উম্মাহ নিঃশেষ হয়ে যাওয়া এক মূল্যহীন উম্মাহ নয় বরং যদি এরা গৌরবের ও জিহাদের পথ বেছে নেয় তবে এই উম্মাহ শক্তিশালী ও সামর্থ্যবান হিসাবে প্রতিয়মান হবে যাদের আছে আক্রমনকারীকে প্রতিহত করার সামর্থ্য।

সুতরাং হে ইসলামী উম্মাহ, আল্লাহ আপনাদের উপর যা বাধ্যতামূলক করেছেন তা আপনাদের ভাইদেরকে সমর্থন ও তাদের বিরুদ্ধে করা আক্রমণকে প্রতিহতের মাধ্যমে আপনারা করে যেতে পারেন।

দ্বিতীয় বার্তা গৌরাবন্বিত মিশরীয় জনগনের প্রতিঃ

ইসলামের দুর্গ ও এর কেল্লা হল মিশর যেখানে অবস্থান করছে আল-কিনানাহ এর সন্তানেরা। আমরা কিভাবে আমাদের ভাইদের পরিত্যাগ করছি যখন তারা আমাদের থেকে সামান্যই দূরে অবস্থান করছে এবং তাদেরকে হত্যা করা হচ্ছে ও বাস্তুচ্যুত করা হচ্ছে? কিভাবে আল্লাহর সৃষ্টির মধ্যে সবচেয়ে ভীরু ও ঘৃণ্য সৃষ্টি- ইহুদীরা গাজায় আক্রমন করার সাহস কিভাবে দেখায় যখন আমাদের হৃৎস্পন্দন ও কঠোর হাত বর্তমান??? ইহুদীরা এগুলো করতে সাহস করত না যদি না তারা ভাবত যে মিশরের জনগন নিরব থাকবে এবং এগিয়ে আসবে না। যারা শুধু অভিযোগই করে আর নিন্দা জানায় কিন্তু সিদ্ধান্ত পৌছায় না এবং কাজও করে না।

তাছাড়া আমরা মিশরের জনগনের কাছে দাবী করি যে তারা যেন গাজায় জান ও মাল দ্বারা তাদের ভাইদের সমর্থনে জেগে ওঠে, সরকারের কাছে দাবী করি যেন আগ্রাসী আক্রমন প্রতিহতের ব্যবস্থা নেয়, কারন আজকে কি মূল্য আছে রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করার এবং আবার আগামীকাল বা তার পরের দিন তাকে ফিরিয়ে আনার মধ্যে, এটা কি অপরাধী ইহুদীদের প্রতিহত করবে? না। সুতরাং হে মিশরের লোকেরা, তোমাদের ভাইদের সাহায্যে তোমাদের ভূমিকা পালন কর।

এবং তৃতীয় বার্তা মিশরীয় বাহিনীর আন্তরিক সদস্যদের প্রতিঃ

কেন আপনারা অস্ত্র বহন করেন এবং প্রশিক্ষিত হন, কিভাবে এগুলো বহন করে যাচ্ছেন যখন প্যালেস্টাইনে (ফিলিস্তিন) আমাদের লোকজন মারা যাচ্ছে এবং আপনারা আপনাদের মাংসপেশিও নাড়াচ্ছেন না? যদি গাজায় আপনারা আপনাদের ভাই ও লোকজনকে রক্ষা করতে না পারেন, অন্ততপক্ষে তাকে ছেড়ে দেন যে তা করতে পারে এবং তার পশ্চাদ্ধাবন করবেন না এবং তার সাথে যুদ্ধ করবেন না, সুতরাং আপনারা যদি ইহুদীদের বাঁধা দিতে না পারেন তবে কমপক্ষে তাদের সাহায্যকারী হবেন না।

 

গর্বিত ও সম্মানিত গাজায় আমাদের জনগণ ও ভাইদের প্রতি

শহীদ ও জিহাদের গাজায় আপনার জিহাদ ও সাহসিকতার ব্যাপারে একনিষ্ঠ থাকুন। শত্রুরা কখনো আপনাদের আত্মত্যাগ ও জিহাদের মনোবল ভাঙতে পারবে না। একনিষ্ঠ মুজাহিদিনদের পাশে একত্রিত হন এবং জবরদখলদারিদের গলার কাঁটা হয়ে যান। যেহেতু আপনারা হচ্ছেন তাদের বিরুদ্ধে এই উম্মাহর প্রথম প্রতিরক্ষা ব্যূহ। ইহুদীদের সাথে আলাপ-আলোচনা এবং যুদ্ধবিরতির কথায় কান দিবেন না যেহেতু তারাই আপোষনামা ও চুক্তির লঙ্ঘনকারী যারা আপোস অথবা আত্মীয় কোন ধরনের বন্ধনকেই শ্রদ্ধা করে না এবং যখন তাদের সুবিধা মনে করে তখন তারা হচ্ছে যুদ্ধবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে এবং তারা সস্তামূল্য আপনাদের রক্তপাত করে থাকে।

সুতরাং জিহাদ্‌… জিহাদ… অটল থাক… অটল থাক… ধৈর্য্য ধর… ধৈর্য্য ধর… যেহেতু আল্লাহ তার বিশ্বাসী বান্দাদের বিজয় দানের ওয়াদা করেছেন।

وَلَقَدْ سَبَقَتْ كَلِمَتُنَا لِعِبَادِنَا الْمُرْسَلِينَ إِنَّهُمْ لَهُمُ الْمَنصُورُونَ وَإِنَّ جُندَنَا لَهُمُ الْغَالِبُونَ [٣٧:١٧٣]

আমার রাসূল ও বান্দাগণের ব্যাপারে আমার এই বাক্য সত্য হয়েছে যে, অবশ্যই তারা সাহায্য প্রাপ্ত হয়। আর আমার বাহিনীই হয় বিজয়ী (সূরা আস-সাফফাত,১৭১-১৭৩)

এবং আল্লাহই হলেন সব ধরনের কর্মকান্ডের একক ক্ষমতাবান কিন্তু অধিকাংশ মানুষই তা জানে না

এবং আমাদের শেষ দোয়া হল আল্লাহর প্রশংসা, যিনি বিশ্বজাহানের মালিক

 

সিনাই এর আল-সালাফিয়া আল-জাহাদিয়া কর্তৃক প্রকাশিত

২ মুহাররম ১৪৩৪ হিজরি, ১৬ নভেম্বর ২০১২ ঈশায়ী

 

 

 

পরিবেশনায়

আনসারুল্লাহ বাংলা টিম

আপনার আন্তরিক দোয়ায় আমাদের এবং মুজাহিদিনদের ভুলবেন না

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eight − one =

Back to top button