সর্বশেষ
সম্মানিত ভিজিটর! গাজওয়াতুল হিন্দ ওয়েবসাইটের আইপি এড্রেস- 82.221.136.58, ব্রাউজিং করতে সমস্যা হলে আইপি দিয়ে প্রবেশ করুন!
Home / বাংলার শহীদ মুজাহিদিন

বাংলার শহীদ মুজাহিদিন

আফগানিস্তানে সোভিয়েত ও দেশীয় কমিউনিস্ট বিরোধী লড়াইয়ে বাংলাদেশের প্রায় তিন হাজার মুজাহিদ অংশ নিয়েছিলেন। যুদ্ধাহত অনেক। উরগুন, খোস্ত, জালালাবাদ, কান্দাহার, গজনীসহ বেশ ক’টি প্রদেশ ও উল্লেখযোগ্য রণাঙ্গনে বাংলাদেশী মুজাহিদদের ভূমিকা ছিল অত্যন্ত উজ্জ্বল। খোস্ত রণাঙ্গনের প্রধান সিপাহসালার কমান্ডার খালেদ যুবায়ের শহীদ হওয়ার পর এ গুরুদায়িত্ব লাভ করেন সমকালীন বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ সন্তান কমান্ডার মাওলানা আব্দুর রহমান ফারুকী। দীর্ঘ প্রায় নয় দিন জিহাদরত থাকার পর তিনিও শাহাদাতবরণ করেন। গোটা আফগান জিাহদেই বাংলাদেশী যুবকেরা অসম সহসিকতা ও সীমাহীন নিষ্ঠার পরিচয় দেন। শহীদ মাওলানা ফারুকীর পর কমান্ডার মনজুর হাসান, ফুফতী আব্দুল হাই, কমান্ডার আব্দুস সালাম, মুফতী শফীকুর রহমান, আবু খালেদ, জাফর বিন কাসেম, আবু তারেক, আব্দুল হাকীম, আলী আহমদ, চাচা বাসেত, মুক্তিযোদ্ধা হাকীমসহ অনেকেই বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন খুব সফলভাবে। সারা দেশের জিহাদ-প্রিয় মানুষের মনে ব্যাপক উদ্দীপনা জাগিয়েছেন তাঁরা। স্মরণ করিয়ে দিচ্ছেন মুসলিম জাতির শৌর্য বীর্য্ আর গৌরবোজ্জ্বল অতীতের কথা।

আফগান রণাঙ্গনে বাংলাদেশের মহানায়কেরা!

মার্কিন বিরোধী লড়াই

(আপডেট হবে ইনশা আল্লাহ)

 

 রুশবিরোধী লড়াই

ক্রঃনং নাম জিলা শাহাদাতের

তারিখ

সেক্টর কোন যুদ্ধে কি ভাবে দাফনের স্থান জিহাদে অংশগ্রহন
শহীদ কমান্ডার মাওলানা আব্দুর রহমান ফারুকী যশোর ১০//১৯৮৯ইং খোস্ত লিজা পোষ্ট মাইন খোস্ত ১৯৮৪
শহীদ মাওলানা নুরুল করিম যশোর ১০//১৯৮৯ইং খোস্ত লিজা পোষ্ট বিস্ফোরণ খোস্ত ১৯৮৭
শহীদ হাফেজ মতিউর রহমান গাজীপুর ২৯//১৯৮৯ খোস্ত শেখ মীর মিসাইল খোস্ত ১৯৮৮
শহীদ হাফেজ আব্দুল মোমেন মোমেনশাহী ১৪//১৯৮৯ খোস্ত মানি কান্ড মাইন বিস্ফরণ খোস্ত ১৯৮৮
শহীদ মাওলানা কামরুজ্জামান যশোর ২৫//১৯৮৫ গজনী শেরানো গুলিতে শেরানো ১৯৮৫
শহীদ রায়হান উদ্দিন গাজীপুর ২১//১৯৮৯ জালালাবাদ কোবাপাহাড়ী গোলায় তুরখম ১৯৮৮
শহীদ মাওলানা শেখ ইসমাইল গাজীপুর ১৯৮৯ খোস্ত গুরবজ হ্যান্ডগ্রেনেড মিরানশাহ ১৯৮৬
শহীদ মাওলানা আব্দুল মতিন ফরিদপুর ১৯৮৯ জালালাবাদ কোবাপাহাড়ী গুলিতে তুরখম ১৯৮৭
শহীদ বদরুল আলম ফরিদপুর ১৯৮৯ খোস্ত গুরবজ হ্যান্ডগ্রেনেড মিরানশাহ ১৯৮৮
১০ শহীদ হাফেজ রহমতুল্লাহ্ ঢাকা ৩০//১৯৮৮ উরগুন জামাখোলা মাইন বিস্ফোরণ ঢাকা ১৯৮৮
১১ শহীদ মাওলানা আব্দুল হামীদ মোমেনশাহী ১৯৮৮ উরগুন জামাখোলা মাইন বিস্ফোরণ উরগুন ১৯৮৬
১২ শহীদ সাইফুল্লাহ বরিশাল ২৩//১৯৮৯ খোস্ত তুরগড় মাইন বিস্ফোরণ পেশোয়ার ১৯৮৭
১৩ শহীদ মোশাররফ হুসাইন কুমিল্লা ২২//১৯৮১ খোস্ত জাহানদান ট্যাংকের গোলা খোস্ত ১৯৮৯
১৪ শহীদ রবিউল্লাহ ঢাকা ১৯৮৯ জালালাবাদ খাইবারত মাইন বিস্ফোরণ পাব্বি ১৯৮৯
১৫ শহীদ প্রফেসর রফিকুল্লাহ নোয়াখালী ১৯৮৬ খোস্ত রাগবেলী গুলিতে রাগবেলী ১৯৮৪
১৬ শহীদ সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী নোয়াখালী ১৯৮৬ খোস্ত রাগবেলী গুলিতে রাগবেলী ১৯৮৬
১৭ শহীদ মুফতি ওবায়দুল্লাহ ব্রাক্ষণবাড়িয়া ১৯৯০ খোস্ত শেখমীর গুলিতে বারী ১৯৮৭
১৮ শহীদ নূরুল ইসলাম হুগলী ১৯৮৮ খোস্ত স্পেনকাই মাইন বিস্ফোরণ   ১৯৮৭
১৯ শহীদ মোহাম্মদ ফরুক খুলনা ১৯৮৮ কাবুল   মর্টারের গোলাতে   ১৯৮৭
২০ শহীদ আব্দুল্লাহ খুলনা ১৯৮৬ হেরাত জিন্দেজান মাইন বিস্ফেরণ জিন্দেজান ১৯৮৬
২১ শহীদ নূরুল ইসলাম বগুড়া ২০/১০/১৯৯১ গরদেজ ছাতিকান্ড মর্টারের গোলাতে মিরানশাহ ১৯৯০
২২ শহীদ ফয়জুল্লাহ নোয়াখালী ১৯৯১ গরদেজ ছাতিকান্ড রকেট মিরানশাহ ১৯৮৯
২৩ শহীদ আব্দুল গফুর চট্রগ্রাম ২০/১০/১৯৯১ গরদেজ ছাতিকান্ড মর্টারের গোলাতে মিরানশাহ ১৯৮৯
২৪ শহীদ মোহাম্মদ আলী বরিশাল //১৯৯২ জালালাবাদ সমরখেল মর্টারের গোলাতে তুরখম ১৯৮৭