চলতি মাসেই মালি থেকে সকল সেনা প্রত্যাহার করবে কানাডা !

0
90

 

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ মালি হতে নিজেদের সকল সেনা পত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে কানাডা।

২০১৩ সাল থেকে ক্রুসেডার ফ্রান্সের নেতৃত্বে দেশটিতে মুসলিম বাহিনী অর্থাৎ আল-কায়দা পশ্চিম আফ্রিকান শাখা জামাআ’ত নুসরাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমীনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে আসছিল দেশটি। দীর্ঘ এই সময় আল-কায়দা শাখা JNIM এর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে গিয়ে নিজ দেশের অনেক সেনাকেই হারিয়েছে কানাডা। এই যুদ্ধের প্রভাব পড়েছে কানাডার অর্থনীতিতেও।

২০১৩ সালে ক্রুসেডার জোট মালিতে আল-কায়দা থেকে অনেক অঞ্চল মুক্ত করার মাধ্যমে সাময়িক বিজয় পেলেও তা তাদের জন্য কোন উপকারে আসেনি। কেননা অল্প সময়েই আল-কায়দা নিজেদেরকে আবারো সংঘঠিত করে ফেলে এবং অনেক ছোট ছোট ইসলামিক বিদ্রোহী গ্রুপগুলোকেও নিজেদের করে নিতে সক্ষম হয়। এরপর শুরু হয় পালটা-পালটি যুদ্ধ। আল-কায়দার জানবায মুজাহিদগণ নিজেদের জন্য বেছে নেন গেরিলা যুদ্ধকে, আর এর জন্য প্রথমে তাঁরা সকল পাহাড়ীয় এলাকাগুলো নিজেদের অধিনে নিয়ে নেন। যেগুলো নিজেদের নিয়ন্ত্রনে নিতে পারেননি সেখানে তাঁরা সাধারণ মানুষের সঙ্গে মিশে যান এবং তাদেরকে তাওহীদ সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা দিতে থাকেন। আর এতে সফলও হয় আল-কায়দার মুজাহিদগণ। যার ফলে নিয়ন্ত্রন ছাড়াও অনেক অঞ্চলেই নিজেদের সমর্থিত লোক প্রস্তুত করে নেন আল-কায়দা মুজাহিদগণ। আর এটাই হয়ে পড়ে ক্রুসেডারদের জন্য পরাজয়ের কারণ সমূহের মধ্য হতে অন্যতম একটি।

আল-কায়দা মুজাহিদগণ জনসমর্থন নিয়েই একের পর এক এলাকা আবারো নিজেদের নিয়ন্ত্রনে নিতে শুরু করেন, পরাজিত হতে থাকে ক্রুসেডার ফ্রান্স ও তার সহযোগী বাহিনীগুলো। এরই ধারাবাহিকতায় এবার নিজেদের সেনা পত্যাহারের ঘোষণা করলো কানাডা। কানাডার সরকার জানায়, তার দেশ ৩১শে এপ্রিলের মধ্যেই মালি থেকে নিজেদের সকল সেনা উঠিয়ে নিবে।

সংবাদটি নিশ্চিত করেছে আফ্রিকান সংবাদ সংস্থা “মুফাক্কিতুল ইখবারিয়্যাহ”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here